ঢাকা ০২:৫৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুন্সীগঞ্জে আঃলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে শ্রমিক লীগ নেতাকে পিটানোর অভিযোগ

মুন্সীগঞ্জে চাঁদা না দেয়ায় শ্রমিক লীগ নেতাকে পিটিয়ে  গুরুতর আহত করার অভিযোগ উঠেছে  ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতির বিরুদ্ধে ।

সোমবার সন্ধ্যা সদর উপজেলার পশ্চিম মুক্তারপুর এলাকায় এই মারধরের ঘটনা ঘটে।  এতে মারধরের শিকার সদর উপজেলা শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি রুহুল কুদ্দুস ফরাজিকে (৪৭) কে গুরুতর অবস্থায় মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।  তিনি পশ্চিম মুক্তারপুরের মৃত আকবর আলী ফরাজির ছেলে৷

আহত শ্রমিক লীগ নেতা রুহুল কুদ্দুস ফরাজি বলেন,গত কয়েকদিন পূর্বে আমার আপন বড় ভাই আলু ব্যবসায়ী আব্দুল করিম ফরাজির কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে পঞ্চসার ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেন। পরে চাঁদা দাবির বিষয়ে সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগ তুলে নিতে  আজ সোমবার সন্ধ্যায় আমার উপর অর্তকিত হামলা চালিয়ে মারধর করে আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেন ও তার সাথে থাকা ২০ থেকে ২৫ জন সন্ত্রাসী। পরে স্থানীয়রা আমাকে উদ্ধার করে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে৷  বর্তমানে আমিও আমার পুরো পরিবার চরম আতঙ্কে রয়েছি।

 

তবে চাঁদাদাবি ও মারধরের বিষয়টি জানানেই দাবি করে অভিযুক্ত ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেন বলেন, উদ্দেশ্যমুলক ভাবে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।

চাঁদাদাবির অভিযোগের তদন্তকারী সদর থানার এস আই হাকিম বলেন,চাঁদাদাবির বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত চলছে।

 

মারধরের ঘটনাটি শুনেছি তবে  লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আমিনুল ইসলাম।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শেরপুরে কোটাবিরোধী আন্দোলনকারী-পুলিশ সংঘর্ষ : পুলিশের গুলি, পুলিশ ও সাংবাদিকসহ আহত ২০

মুন্সীগঞ্জে আঃলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে শ্রমিক লীগ নেতাকে পিটানোর অভিযোগ

আপডেট সময় ০২:৪৪:০৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪

মুন্সীগঞ্জে চাঁদা না দেয়ায় শ্রমিক লীগ নেতাকে পিটিয়ে  গুরুতর আহত করার অভিযোগ উঠেছে  ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতির বিরুদ্ধে ।

সোমবার সন্ধ্যা সদর উপজেলার পশ্চিম মুক্তারপুর এলাকায় এই মারধরের ঘটনা ঘটে।  এতে মারধরের শিকার সদর উপজেলা শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি রুহুল কুদ্দুস ফরাজিকে (৪৭) কে গুরুতর অবস্থায় মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।  তিনি পশ্চিম মুক্তারপুরের মৃত আকবর আলী ফরাজির ছেলে৷

আহত শ্রমিক লীগ নেতা রুহুল কুদ্দুস ফরাজি বলেন,গত কয়েকদিন পূর্বে আমার আপন বড় ভাই আলু ব্যবসায়ী আব্দুল করিম ফরাজির কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে পঞ্চসার ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেন। পরে চাঁদা দাবির বিষয়ে সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগ তুলে নিতে  আজ সোমবার সন্ধ্যায় আমার উপর অর্তকিত হামলা চালিয়ে মারধর করে আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেন ও তার সাথে থাকা ২০ থেকে ২৫ জন সন্ত্রাসী। পরে স্থানীয়রা আমাকে উদ্ধার করে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে৷  বর্তমানে আমিও আমার পুরো পরিবার চরম আতঙ্কে রয়েছি।

 

তবে চাঁদাদাবি ও মারধরের বিষয়টি জানানেই দাবি করে অভিযুক্ত ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেন বলেন, উদ্দেশ্যমুলক ভাবে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।

চাঁদাদাবির অভিযোগের তদন্তকারী সদর থানার এস আই হাকিম বলেন,চাঁদাদাবির বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত চলছে।

 

মারধরের ঘটনাটি শুনেছি তবে  লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আমিনুল ইসলাম।