ঢাকা ০১:১০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নেত্রকোণায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার ৬দিন পর আহত স্কুলছাত্রের মৃত্যু

নেত্রকোণার মদনে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত হয়ে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় ছয় দিন পর মো. তনয় (১৮) নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।
বুধবার (৪ জুলাই) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় মৃত্যু হয় তয়নের।
এরআগে গত শুক্রবার  (২৮ জুন) উপজেলার নেত্রকোণা-মদন  সড়কে আলম বাজারের কাছে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষের গুরুতর আহত হয় তনয়।
তনয় উপজেলার  চানগাঁও সাহাপুর তিনবাড়ী গ্রামের মৃত মানিক মিয়ার ছেলে। সে স্থানীয় একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। মদন থানার ওসি উজ্জ্বল কান্তি সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তনয় শুক্রবার সকালে মোটরসাইকেল চালিয়ে বাড়ি থেকে উপজেলা সদরে যাচ্ছিল। পথে আলম বাজারের কাছে বিপরীত দিক থেকে আসা দ্রুতগামী মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে মাথায় গুরুতর আঘাত পায় তনয়। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় পরদিন সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
অবস্থার অবনতি হওয়ায় পরদিন মমেক থেকেও তনয়কে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে প্রেরণ করেন।  ঢামেকে  তার অবস্থা আরো অবনতি হওয়ায় পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। সেখানে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় বুধবার সকালে তনয়ের মৃত্যু হয়।
মদন থানার ওসি উজ্জ্বল কান্তি সরকার বলেন, পরিবারের পক্ষ থেকে এ ঘটনায় থানায় কোন অভিযোগ না  করায় কোন মামলা হয়নি।
ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শেরপুরে কোটাবিরোধী আন্দোলনকারী-পুলিশ সংঘর্ষ : পুলিশের গুলি, পুলিশ ও সাংবাদিকসহ আহত ২০

নেত্রকোণায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার ৬দিন পর আহত স্কুলছাত্রের মৃত্যু

আপডেট সময় ০৮:০২:১০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই ২০২৪
নেত্রকোণার মদনে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহত হয়ে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় ছয় দিন পর মো. তনয় (১৮) নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।
বুধবার (৪ জুলাই) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় মৃত্যু হয় তয়নের।
এরআগে গত শুক্রবার  (২৮ জুন) উপজেলার নেত্রকোণা-মদন  সড়কে আলম বাজারের কাছে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষের গুরুতর আহত হয় তনয়।
তনয় উপজেলার  চানগাঁও সাহাপুর তিনবাড়ী গ্রামের মৃত মানিক মিয়ার ছেলে। সে স্থানীয় একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। মদন থানার ওসি উজ্জ্বল কান্তি সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, তনয় শুক্রবার সকালে মোটরসাইকেল চালিয়ে বাড়ি থেকে উপজেলা সদরে যাচ্ছিল। পথে আলম বাজারের কাছে বিপরীত দিক থেকে আসা দ্রুতগামী মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে মাথায় গুরুতর আঘাত পায় তনয়। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় পরদিন সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
অবস্থার অবনতি হওয়ায় পরদিন মমেক থেকেও তনয়কে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে প্রেরণ করেন।  ঢামেকে  তার অবস্থা আরো অবনতি হওয়ায় পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। সেখানে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় বুধবার সকালে তনয়ের মৃত্যু হয়।
মদন থানার ওসি উজ্জ্বল কান্তি সরকার বলেন, পরিবারের পক্ষ থেকে এ ঘটনায় থানায় কোন অভিযোগ না  করায় কোন মামলা হয়নি।