ঢাকা ০৫:৪৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ২ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদপুরে চরাঞ্চরে কৃষকদের মাঝে গাম বুট বিতরণ করেন ডিসি

ফরিদপুর সদর  উপজেলার পদ্মা নদী তীরবর্তী নর্থ চ্যানেল এলাকায় সম্প্রতি বিষধর রাসেলস ভাইপার সাপের উপদ্রব বৃদ্ধি পেয়েছে। বিভিন্ন সময়ে অন্তত ১০-১৫টি সাপ মারা পড়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে সাপের কামড়ে এক কৃষকের মৃত্যূর ঘটনা ঘটে। কিন্তু বাস্তবে পরিস্থিতি ততটা খারাপ না বলেন জেলা প্রশাসক।
মাঠে কাজ করার ভীতি দুর করতে রবিবার বিকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় সামনে ২০০ জন কৃষকের মাঝে গাম বুট প্রদান করা হয়েছে। ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল আহসান তালুকদার প্রধান অতিথি থেকে কৃষকদের এ গাম বুট বিতরন করেন।
জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল আহসান তালুকদার বলেন, রাসেলস ভাইপার নিয়ে আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হতে হবে। তিনি বলেন, এই মাসে ১ জন কৃষক সাপের কামড়ে মারা গেছে। তবে মানুষ রাসেল ভাইপার আতঙ্কে নানা প্রজাতীর সাপ মেরে ফেলছে।  সাপ খুব উপকারী প্রানী,  এরা ফসলের ক্ষতিকর পোকা মাকড় খেয়ে নিধন করে। তাই তিনি কৃষকদের  সচেতন ভাবে মাঠে কাজ করার আহবান জানান।  আজকে প্রাথমিকভাবে ২শ জন কৃষককে গামবুট দেওয়া হলো। পরবর্তীতে পরিস্থিতি বিবেচনায় প্রয়োজনে আরও দেওয়া হবে।
অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক মোঃ ইয়াছিন কবির এর সভাপতিত্বতে আরো উপস্থিত ছিলেন  স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ পরিচালক চৌধুরী রওশন ইসলাম,  সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  তামান্না তাসনীম সহ উর্ধতন কমর্কতা।
ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শেরপুরে কোটাবিরোধী আন্দোলনকারী-পুলিশ সংঘর্ষ : পুলিশের গুলি, পুলিশ ও সাংবাদিকসহ আহত ২০

ফরিদপুরে চরাঞ্চরে কৃষকদের মাঝে গাম বুট বিতরণ করেন ডিসি

আপডেট সময় ০১:০৫:৫১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪
ফরিদপুর সদর  উপজেলার পদ্মা নদী তীরবর্তী নর্থ চ্যানেল এলাকায় সম্প্রতি বিষধর রাসেলস ভাইপার সাপের উপদ্রব বৃদ্ধি পেয়েছে। বিভিন্ন সময়ে অন্তত ১০-১৫টি সাপ মারা পড়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে সাপের কামড়ে এক কৃষকের মৃত্যূর ঘটনা ঘটে। কিন্তু বাস্তবে পরিস্থিতি ততটা খারাপ না বলেন জেলা প্রশাসক।
মাঠে কাজ করার ভীতি দুর করতে রবিবার বিকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় সামনে ২০০ জন কৃষকের মাঝে গাম বুট প্রদান করা হয়েছে। ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল আহসান তালুকদার প্রধান অতিথি থেকে কৃষকদের এ গাম বুট বিতরন করেন।
জেলা প্রশাসক মোঃ কামরুল আহসান তালুকদার বলেন, রাসেলস ভাইপার নিয়ে আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হতে হবে। তিনি বলেন, এই মাসে ১ জন কৃষক সাপের কামড়ে মারা গেছে। তবে মানুষ রাসেল ভাইপার আতঙ্কে নানা প্রজাতীর সাপ মেরে ফেলছে।  সাপ খুব উপকারী প্রানী,  এরা ফসলের ক্ষতিকর পোকা মাকড় খেয়ে নিধন করে। তাই তিনি কৃষকদের  সচেতন ভাবে মাঠে কাজ করার আহবান জানান।  আজকে প্রাথমিকভাবে ২শ জন কৃষককে গামবুট দেওয়া হলো। পরবর্তীতে পরিস্থিতি বিবেচনায় প্রয়োজনে আরও দেওয়া হবে।
অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক মোঃ ইয়াছিন কবির এর সভাপতিত্বতে আরো উপস্থিত ছিলেন  স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ পরিচালক চৌধুরী রওশন ইসলাম,  সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  তামান্না তাসনীম সহ উর্ধতন কমর্কতা।