ঢাকা ০২:২৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাঘায় সব-রেজিস্ট্রি অফিসে অনিয়ম ও দুর্নীতি করা সমিতি বিলুপ্তকরণ প্রসঙ্গে মানববন্ধন

বাঘা সাব রেজিস্ট্রি অফিসের অনিয়ম মানি না মানবো না,সমিতির নামে জুলুম বন্ধ কর করতে হবে,সমিতি মুক্ত সাব রেজিস্ট্রি অফিস চাই,এমন সব ফেস্টন হাতে রাজশাহীর বাঘা উপজেলা পরিষদের সামনে সাব -রেজিস্ট্রি অফিসে জমি রেজিস্ট্রির সময় অতিরিক্ত টাকা আদায়, অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রতিবাদে দলিল লেখক ও সর্বস্তরের জনসাধারণের ব্যানারে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সকাল সাড়ে ১০ টা থেকে  শুরু হয়ে ১২ ঘটিকায় শেষ হয় এ মানবন্ধনটি।
উক্ত মানববন্ধনে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন বাঘা উপজেলার পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডঃ লায়েব উদ্দিন লাভলু, বাঘা পৌর মেয়র মোঃ আক্কাছ আলী, মুকাদ্দেস আলী ভাইস চেয়ারম্যান বাঘা উপজেলা পরিষদ, মেরাজুল ইসলাম মেরাজ পাকুড়িয়া ইউপির চেয়ারম্যান, সাবেক দলিল লেখক সমিতির সভাপতি স্বপন আলী।
বাঘা সাব-রেজিষ্ট্রি অফিস ও দলিল লেখক সমিতির বিরুদ্ধে মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন,বাঘা উপজেলার পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান শফিউর রহমান শফি, চকরাজাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী সাধারণ সম্পাদক,বাঘা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সানোয়ার হোসেন সুরুজ ও মাইনুল ইসলাম মুক্তা,বাঘা পৌর ৮ নং কাউন্সিল শফিউল রহমানশফি,আওয়ামিলীগ নেতা কামাল হোসেন, লিটন হোসেন প্রমুখসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আগত সর্বস্তরের শতশত জনসাধারণ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বাঘা উপজেলা সাব রেজিস্ট্রি অফিস দীর্ঘদিন যাবত ভূমি দস্যুদের দখলে। তারা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে সরকারি নির্ধারিত ফী এর বাহিরে বিভিন্ন অজুহাতে অতিরিক্ত টাকা আদায় করে থাকেন। এই সিন্ডিকেট সরকারি নিয়ম বহির্ভূতভাবে সমিতির নাম করে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে রেখেছেন। একটি মহলের দিকনির্দেশনায় সমিতিটি পরিচালিত হয়ে থাকে এবং এর লভ্যাংশ তাদের ব্যক্তিগত খাতে জমা হয়। এছাড়াও উক্ত মহলের নির্দেশনায় মদদ পুষ্ট ব্যাক্তিদের সভাপতি, সেক্রেটারি করে দলিল লেখকদের জিম্মি করে রেখেছেন। দলিল লেখকগণ ভোটের মাধ্যমে সভাপতি, সেক্রেটার নির্ধারণের দাবি জানালেও তা ভ্রুক্ষেপ করেন না।
উল্লেখ্যঃ গত ১০ জুন ২০২৪ তারিখে বাঘা সাব রেজিস্ট্রি অফিস দখল নেওয়াকে কেন্দ্র করে একটি অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে, যারফলে প্রায় ১০/ ১২ জন গুরুতর আহত হন। রাজশাহী- ৬ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ শাহরিয়ার আলম এমপির নির্দেশনায় গত ৯ জুন ২০২৪ তারিখে বাঘা সাব রেজিস্ট্রি দলিল লেখক সমিতির সভাপতি-সেক্রেটারি নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানা যায়। উক্ত সমিতির সভাপতি- সেক্রেটার নির্ধারণ করার পর থেকেই বাঘা সাব রেজিস্ট্রি অফিসে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে। আবারও যেকোনো সময় বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে।
ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শেরপুরে কোটাবিরোধী আন্দোলনকারী-পুলিশ সংঘর্ষ : পুলিশের গুলি, পুলিশ ও সাংবাদিকসহ আহত ২০

বাঘায় সব-রেজিস্ট্রি অফিসে অনিয়ম ও দুর্নীতি করা সমিতি বিলুপ্তকরণ প্রসঙ্গে মানববন্ধন

আপডেট সময় ০২:২২:১৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪
বাঘা সাব রেজিস্ট্রি অফিসের অনিয়ম মানি না মানবো না,সমিতির নামে জুলুম বন্ধ কর করতে হবে,সমিতি মুক্ত সাব রেজিস্ট্রি অফিস চাই,এমন সব ফেস্টন হাতে রাজশাহীর বাঘা উপজেলা পরিষদের সামনে সাব -রেজিস্ট্রি অফিসে জমি রেজিস্ট্রির সময় অতিরিক্ত টাকা আদায়, অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রতিবাদে দলিল লেখক ও সর্বস্তরের জনসাধারণের ব্যানারে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সকাল সাড়ে ১০ টা থেকে  শুরু হয়ে ১২ ঘটিকায় শেষ হয় এ মানবন্ধনটি।
উক্ত মানববন্ধনে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন বাঘা উপজেলার পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডঃ লায়েব উদ্দিন লাভলু, বাঘা পৌর মেয়র মোঃ আক্কাছ আলী, মুকাদ্দেস আলী ভাইস চেয়ারম্যান বাঘা উপজেলা পরিষদ, মেরাজুল ইসলাম মেরাজ পাকুড়িয়া ইউপির চেয়ারম্যান, সাবেক দলিল লেখক সমিতির সভাপতি স্বপন আলী।
বাঘা সাব-রেজিষ্ট্রি অফিস ও দলিল লেখক সমিতির বিরুদ্ধে মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন,বাঘা উপজেলার পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান শফিউর রহমান শফি, চকরাজাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী সাধারণ সম্পাদক,বাঘা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সানোয়ার হোসেন সুরুজ ও মাইনুল ইসলাম মুক্তা,বাঘা পৌর ৮ নং কাউন্সিল শফিউল রহমানশফি,আওয়ামিলীগ নেতা কামাল হোসেন, লিটন হোসেন প্রমুখসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আগত সর্বস্তরের শতশত জনসাধারণ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বাঘা উপজেলা সাব রেজিস্ট্রি অফিস দীর্ঘদিন যাবত ভূমি দস্যুদের দখলে। তারা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে সরকারি নির্ধারিত ফী এর বাহিরে বিভিন্ন অজুহাতে অতিরিক্ত টাকা আদায় করে থাকেন। এই সিন্ডিকেট সরকারি নিয়ম বহির্ভূতভাবে সমিতির নাম করে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে রেখেছেন। একটি মহলের দিকনির্দেশনায় সমিতিটি পরিচালিত হয়ে থাকে এবং এর লভ্যাংশ তাদের ব্যক্তিগত খাতে জমা হয়। এছাড়াও উক্ত মহলের নির্দেশনায় মদদ পুষ্ট ব্যাক্তিদের সভাপতি, সেক্রেটারি করে দলিল লেখকদের জিম্মি করে রেখেছেন। দলিল লেখকগণ ভোটের মাধ্যমে সভাপতি, সেক্রেটার নির্ধারণের দাবি জানালেও তা ভ্রুক্ষেপ করেন না।
উল্লেখ্যঃ গত ১০ জুন ২০২৪ তারিখে বাঘা সাব রেজিস্ট্রি অফিস দখল নেওয়াকে কেন্দ্র করে একটি অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে, যারফলে প্রায় ১০/ ১২ জন গুরুতর আহত হন। রাজশাহী- ৬ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ শাহরিয়ার আলম এমপির নির্দেশনায় গত ৯ জুন ২০২৪ তারিখে বাঘা সাব রেজিস্ট্রি দলিল লেখক সমিতির সভাপতি-সেক্রেটারি নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানা যায়। উক্ত সমিতির সভাপতি- সেক্রেটার নির্ধারণ করার পর থেকেই বাঘা সাব রেজিস্ট্রি অফিসে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি বিরাজ করছে। আবারও যেকোনো সময় বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে।