ঢাকা ১১:০৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফসলি জমি নষ্ট করছেন অবৈধ ড্রেজার ব্যবসায়ীরা : প্রশাসনের অভিযানে ৪ ড্রেজার বিনষ্ট 

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার রামভদ্রপুর ইউনিয়নের মহিষকান্দিতে অবস্থিত নিউ  বিসমিল্লাহ ব্রিকস সংলগ্ন রামভদ্রপুর নদীতে অবৈধ ড্রেজারের  বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এ সময় নদী থেকে বালু উত্তোলনরত অবস্থায় দুটি ড্রেজার  এবং নদী থেকে বালু উত্তোলনের প্রস্তুতি নেওয়ার সময় দুইটি ড্রেজার  সহ মোট চারটি ড্রেজার  জব্দ করা হয়েছে। এছাড়াও চরপাইয়াতলী গ্রামে আরও দুইটি ড্রেজার অপসারন  করা হয়।
বর্ষা মৌসুম শুরু একশ্রেণির অতি লোভী বালু ব্যবসায়ীরা ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। ফলে একাদিকে ফসলি জমি নষ্ট অন্যদিকে বিলের সৌন্দর্য দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে।
জানা গেছে, ভেদরগঞ্জ  উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের গ্রামের জনৈক ড্রেজার ব্যবসায়ীরা অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বিভিন্ন ফসলি জমি নষ্ট করে রমরমা এ ব্যবসা চালিয়ে আসছেন। তবে গোপন সংবােদর ভিত্তিতে
ভেদরগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার( ভূমি) ইমামুল হাফেজ নাদিম  অভিযান চালিয়ে অবৈধ ড্রেজার মেশিন কুপিয়ে বিনষ্ট করেন
স্থানীয়  একাধিক কৃষক জানান, অবৈধভাবে ড্রেজার বসিয়ে ফসলি জমি নষ্ট করছে। কিন্তু বালু উত্তোলনকারী ব্যবসায়ীরা প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে কেউ ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পায়নি। তবে প্রশাসন বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ড্রেজার বন্ধ করলেও পুনরায় কিছুদিন পর আবার ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তোলন করে যাচ্ছেন তারা, এক দিকে নদী ভাঙ্গা অন্যদিকে ফসিল জমি হুমকির মুখে।
এলাকাবাসী জানান, প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে এলাকার কিছু প্রভাবশালী লোকদের ম্যানেজ করে অবৈধ বালু উত্তোলনের কাজ চালিয়ে আসছিলো   বিষয়টি প্রশাসনের নজর আসলে তারা অভিযান চালিয়ে অবৈধ ড্রেজার মেশিন কুপিয়ে বিনষ্ট করেন।
ধন্যবাদ জানাই ভেদরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনকে।
৪ জুন ২০২৪ অভিযান পরিচালনা করেন ভেদরগঞ্জ উপজেলা  সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইমামুল হাফিজ নাদিম, তিনি বলেন অবৈধ ড্রেজারের বিরুদ্ধে অভিযান আমাদের  নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ এবং তা অব্যাহত
ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

ফরিদপুরে রাজস্ব সম্মেলন অনুষ্ঠিত

ফসলি জমি নষ্ট করছেন অবৈধ ড্রেজার ব্যবসায়ীরা : প্রশাসনের অভিযানে ৪ ড্রেজার বিনষ্ট 

আপডেট সময় ০১:০৪:৪৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ জুন ২০২৪
শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার রামভদ্রপুর ইউনিয়নের মহিষকান্দিতে অবস্থিত নিউ  বিসমিল্লাহ ব্রিকস সংলগ্ন রামভদ্রপুর নদীতে অবৈধ ড্রেজারের  বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এ সময় নদী থেকে বালু উত্তোলনরত অবস্থায় দুটি ড্রেজার  এবং নদী থেকে বালু উত্তোলনের প্রস্তুতি নেওয়ার সময় দুইটি ড্রেজার  সহ মোট চারটি ড্রেজার  জব্দ করা হয়েছে। এছাড়াও চরপাইয়াতলী গ্রামে আরও দুইটি ড্রেজার অপসারন  করা হয়।
বর্ষা মৌসুম শুরু একশ্রেণির অতি লোভী বালু ব্যবসায়ীরা ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। ফলে একাদিকে ফসলি জমি নষ্ট অন্যদিকে বিলের সৌন্দর্য দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে।
জানা গেছে, ভেদরগঞ্জ  উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের গ্রামের জনৈক ড্রেজার ব্যবসায়ীরা অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বিভিন্ন ফসলি জমি নষ্ট করে রমরমা এ ব্যবসা চালিয়ে আসছেন। তবে গোপন সংবােদর ভিত্তিতে
ভেদরগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার( ভূমি) ইমামুল হাফেজ নাদিম  অভিযান চালিয়ে অবৈধ ড্রেজার মেশিন কুপিয়ে বিনষ্ট করেন
স্থানীয়  একাধিক কৃষক জানান, অবৈধভাবে ড্রেজার বসিয়ে ফসলি জমি নষ্ট করছে। কিন্তু বালু উত্তোলনকারী ব্যবসায়ীরা প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে কেউ ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পায়নি। তবে প্রশাসন বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ড্রেজার বন্ধ করলেও পুনরায় কিছুদিন পর আবার ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তোলন করে যাচ্ছেন তারা, এক দিকে নদী ভাঙ্গা অন্যদিকে ফসিল জমি হুমকির মুখে।
এলাকাবাসী জানান, প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে এলাকার কিছু প্রভাবশালী লোকদের ম্যানেজ করে অবৈধ বালু উত্তোলনের কাজ চালিয়ে আসছিলো   বিষয়টি প্রশাসনের নজর আসলে তারা অভিযান চালিয়ে অবৈধ ড্রেজার মেশিন কুপিয়ে বিনষ্ট করেন।
ধন্যবাদ জানাই ভেদরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনকে।
৪ জুন ২০২৪ অভিযান পরিচালনা করেন ভেদরগঞ্জ উপজেলা  সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইমামুল হাফিজ নাদিম, তিনি বলেন অবৈধ ড্রেজারের বিরুদ্ধে অভিযান আমাদের  নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ এবং তা অব্যাহত