ঢাকা ১০:৫৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডোমারে নেশার টাকা না পেয়ে কিশোরের আত্মহত্যা

নীলফামারীর ডোমারে রাব্বি হোসেন(১৮) নামে এক মাদকসেবী কিশোর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। রাব্বি হোসেন ডোমার পৌরসভার মাদ্রারাসা পাড়া এলাকার নেয়াজ আলীর একমাত্র ছেলে।
রোববার (২জুন) সকাল সাড়ে নয়টায় মায়ের কাছে মাদক ক্রয়ের টাকা না পেয়ে নিজ বাড়ীর সামনে  আম গাছের ডালে ওড়না পেচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে ওই মাদকাসক্ত কিশোর। খবর পেয়ে ডোমার থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা মর্গে পাঠায়।
রাব্বির মা রুপালী বেগম জানান, ছেলেকে মাদকের কবল থেকে বাঁচাতে এবং তার নির্যাতনের হাত থেকে রক্ষা পেতে উপজেলা প্রশাসন,থানা পুলিশের সহযোগীতা চেয়েও এর কোন প্রতিকার পাওয়ার আগেই ছেলে রাব্বি আত্মহত্যা করেন।
মৃত রাব্বির বাবা দিনমজুর নেয়াজ আলী কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন,সকালে ছেলে টাকা চাইলে বিশ টাকা দেই। কিন্তু সেই টাকায় তার মাদক কেনা হবে না। আরো টাকা চায়, কিন্তু ছেলেকে মাদক কেনার টাকা দিতে না পারায়,ক্ষোভে আত্মহত্যা করে।
ডোমার থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মহসীন আলী মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন,ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে প্রেরণ করা হয়। এব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত মামলা হয়েছে।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

ফরিদপুরে রাজস্ব সম্মেলন অনুষ্ঠিত

ডোমারে নেশার টাকা না পেয়ে কিশোরের আত্মহত্যা

আপডেট সময় ০৭:২৪:৩৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২ জুন ২০২৪

নীলফামারীর ডোমারে রাব্বি হোসেন(১৮) নামে এক মাদকসেবী কিশোর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। রাব্বি হোসেন ডোমার পৌরসভার মাদ্রারাসা পাড়া এলাকার নেয়াজ আলীর একমাত্র ছেলে।
রোববার (২জুন) সকাল সাড়ে নয়টায় মায়ের কাছে মাদক ক্রয়ের টাকা না পেয়ে নিজ বাড়ীর সামনে  আম গাছের ডালে ওড়না পেচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে ওই মাদকাসক্ত কিশোর। খবর পেয়ে ডোমার থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা মর্গে পাঠায়।
রাব্বির মা রুপালী বেগম জানান, ছেলেকে মাদকের কবল থেকে বাঁচাতে এবং তার নির্যাতনের হাত থেকে রক্ষা পেতে উপজেলা প্রশাসন,থানা পুলিশের সহযোগীতা চেয়েও এর কোন প্রতিকার পাওয়ার আগেই ছেলে রাব্বি আত্মহত্যা করেন।
মৃত রাব্বির বাবা দিনমজুর নেয়াজ আলী কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন,সকালে ছেলে টাকা চাইলে বিশ টাকা দেই। কিন্তু সেই টাকায় তার মাদক কেনা হবে না। আরো টাকা চায়, কিন্তু ছেলেকে মাদক কেনার টাকা দিতে না পারায়,ক্ষোভে আত্মহত্যা করে।
ডোমার থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মহসীন আলী মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন,ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে প্রেরণ করা হয়। এব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত মামলা হয়েছে।