ঢাকা ০৭:৫১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শ্রীনগরে ইউনিয়ন আঃলীগ সভাপতিকে উপজেলা সভাপতি’র হুমকি’র প্রতিবাদ সভা

 আসন্ন ২৯ মে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কুকুটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতিসহ একাধিক নেতাকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হুমকি’র প্রতিবাদে প্রতিবাদ সভার আয়োজন করা হয়েছে।

শুক্রবার বিকেল ৫টায় উপজেলার কুকুটিয়া বাজারে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এই প্রতিবাদ সভা হয়।

এসময় প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত থেকে প্রতিবাদ জানান, উপজেলা আঃলীগের সাবেক সিনিঃ সহ-সভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সেলিম আহম্মেদ ভুইয়া, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম সারোয়ার মামুন, কুকুটিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাবুল হোসেন বাবু,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি রেজাউল করিম রেজা, যুবলীগের সাবেক সাঃ সম্পাদক হাবিবুর রহমান উজ্জল, ইমপেরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ দেলোয়ার হোসেন মৃর্ধা, শিক্ষানুরাগী আবুল কালাম আজাদসহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা রাকিব ও আঃলীগ নেতা মিজান জানান, গতকাল  ৯মে রাত সাড়ে ৯টার দিকে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রাকিব ঢাকা থেকে নিজ বাড়িতে আসার উদ্দেশ্য রওয়ানা হয়ে বাস থেকে বেজগাঁও বাসস্ট্যান্ডের থামার সাথে সাথে তাকে কুকুটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাঃ সম্পাদক আক্তার হোসেন মিন্টু ধরে উপজেলা যুবলীগ নেতা সোহেল রাজের দোকানে নিয়ে গেলে তথায় উপস্থিত উপজেলা আঃলীগের সভাপতি হাজী তোফাজ্জল হোসেন হুমকি দিয়ে বলেন,উপজেলা সাঃ সম্পাদক মসিউর রহমান মামুনের বিপক্ষে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী এম মাহবুব উল্লাহ কিসমত এর পক্ষে  নির্বাচন করতে হবে, না করলে ভয়াবহ পরিনতি হবে বলে হুমকি প্রদান  করেন। এসময় কুকুটিয়া ইউনিয়ন আঃলীগের সাঃ সম্পাদক আক্তার হোসেন মিন্টু’র মোবাইল ফোন ব্যবহার করে কুকুটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য মিজানকে ফোন দিয়ে বলেন, রেজাকে সভাপতি বানাইছি আমি, কিসমতের নির্বাচন করতে হবে অন্যথায় এলাকায় টিকে থাকতে পারবে না।

হুমকি প্রদর্শনের ব্যাপারে কুকুটিয়া ইউনিয়ন আঃলীগের সাঃ সম্পাদক আক্তার হোসেন মিন্টু বলেন, আমি রাকিবকে ধরে নেই নাই। আর সভাপতি তোফাজ্জল দা ওখানেই বসা ছিল। ওখানে রাকিবের সাথে কি হয়েছে আমি শুনি নাই।

হুমকি প্রদর্শনের ব্যাপারে উপজেলা আঃলীগের সভাপতি হাজী তোফাজ্জল হোসেন বলেন, আমি রেজাকে সভাপতি বানাইছি এবং মামলা থেকে বাচাইছি। এজন্য তাকে শাসন করেছি।

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

ফরিদপুরের আদিবাসীদের শিক্ষা কর্মসংস্থান ও বাসস্থানের নিশ্চয়তা দাবী

শ্রীনগরে ইউনিয়ন আঃলীগ সভাপতিকে উপজেলা সভাপতি’র হুমকি’র প্রতিবাদ সভা

আপডেট সময় ১১:৪৯:৩৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১০ মে ২০২৪

 আসন্ন ২৯ মে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কুকুটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতিসহ একাধিক নেতাকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হুমকি’র প্রতিবাদে প্রতিবাদ সভার আয়োজন করা হয়েছে।

শুক্রবার বিকেল ৫টায় উপজেলার কুকুটিয়া বাজারে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এই প্রতিবাদ সভা হয়।

এসময় প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত থেকে প্রতিবাদ জানান, উপজেলা আঃলীগের সাবেক সিনিঃ সহ-সভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সেলিম আহম্মেদ ভুইয়া, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম সারোয়ার মামুন, কুকুটিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাবুল হোসেন বাবু,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি রেজাউল করিম রেজা, যুবলীগের সাবেক সাঃ সম্পাদক হাবিবুর রহমান উজ্জল, ইমপেরিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ দেলোয়ার হোসেন মৃর্ধা, শিক্ষানুরাগী আবুল কালাম আজাদসহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা রাকিব ও আঃলীগ নেতা মিজান জানান, গতকাল  ৯মে রাত সাড়ে ৯টার দিকে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রাকিব ঢাকা থেকে নিজ বাড়িতে আসার উদ্দেশ্য রওয়ানা হয়ে বাস থেকে বেজগাঁও বাসস্ট্যান্ডের থামার সাথে সাথে তাকে কুকুটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাঃ সম্পাদক আক্তার হোসেন মিন্টু ধরে উপজেলা যুবলীগ নেতা সোহেল রাজের দোকানে নিয়ে গেলে তথায় উপস্থিত উপজেলা আঃলীগের সভাপতি হাজী তোফাজ্জল হোসেন হুমকি দিয়ে বলেন,উপজেলা সাঃ সম্পাদক মসিউর রহমান মামুনের বিপক্ষে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী এম মাহবুব উল্লাহ কিসমত এর পক্ষে  নির্বাচন করতে হবে, না করলে ভয়াবহ পরিনতি হবে বলে হুমকি প্রদান  করেন। এসময় কুকুটিয়া ইউনিয়ন আঃলীগের সাঃ সম্পাদক আক্তার হোসেন মিন্টু’র মোবাইল ফোন ব্যবহার করে কুকুটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য মিজানকে ফোন দিয়ে বলেন, রেজাকে সভাপতি বানাইছি আমি, কিসমতের নির্বাচন করতে হবে অন্যথায় এলাকায় টিকে থাকতে পারবে না।

হুমকি প্রদর্শনের ব্যাপারে কুকুটিয়া ইউনিয়ন আঃলীগের সাঃ সম্পাদক আক্তার হোসেন মিন্টু বলেন, আমি রাকিবকে ধরে নেই নাই। আর সভাপতি তোফাজ্জল দা ওখানেই বসা ছিল। ওখানে রাকিবের সাথে কি হয়েছে আমি শুনি নাই।

হুমকি প্রদর্শনের ব্যাপারে উপজেলা আঃলীগের সভাপতি হাজী তোফাজ্জল হোসেন বলেন, আমি রেজাকে সভাপতি বানাইছি এবং মামলা থেকে বাচাইছি। এজন্য তাকে শাসন করেছি।