বরগুনায় শিশু ধর্ষণ মামলার আসামিকে চট্টগ্রামে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ

অলিউল্লাহ্ ইমরান, বরগুনাঃ
বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলায় ১৩ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলার আসামি ৩৬৫দিন পরে চট্রগ্রামে বিশেষ অভিযান করে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
বুধবার চট্টগ্রাম কর্ণফুলী নদীতে বিদেশি মাছ শিকার করার জাহাজ থেকে কর্ণফুলী নৌ-পুলিশের সহযোগিতায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
মামলার বর্তমান তদন্তকারী কর্মকর্তা বরগুনা জেলা গোয়েন্দা শাখা পুলিশের এসআই মোশাররফ হোসেন জানান,  লম্পট খলিল (৪৫)কে গ্রেপ্তার করতে চেস্টা ছিল নিভির। আমরা সফল হয়েছি।
উল্লেখ্য যে, গত ০৫/০৩/২১ রুহিতা এলাকায় ওই শিশুকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে জোর পূর্বক ঘরের পাসে পরিত্যক্ত শুকনো কুয়ার মধ্যে নিয়ে ধর্ষণ করে লম্পট খালিল।
শিশুটি স্থানীয় স্কুলে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেন। তার বাবা দশ বছর আগেই মৃত্যু বরণ করেন। মা মানুষের শুঁটকি খলায় কাজ করে সংসার চালায়। শিশুটির চিকিৎসা ও আলামত সংগ্রহের পরীক্ষা পাথরঘাটা সৌদি প্রবাসী হাসপাতালে সম্পন্ন হয়েছিল।
ঘটনার পরপরই অভিযুক্ত খলিল এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গিয়ে সাগরের মধ্যে টলারে মাছ ধরছে এবং পলিয়ে রয়েছে। এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে পাথরঘাটা থানায় খলিল এর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। এবং ভিকটিম এর গর্ভে থেকে একটি শিশু জন্মগ্রহণ করেন।
প্রযুক্তির ব্যবহার সহ বিভিন্ন কৌশলে এসআই মোশাররফ, এএসআই শহিদ, কনেষ্টবল কাওসার চট্টগ্রাম থেকে খলিলকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বরগুনা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম মিলন।