স্বপ্ন অতিক্রম করার স্বপ্ন দেখি

লেখক: এম. মতিন (সাংবাদিক)
চাওয়া-পাওয়া, প্রত্যাশা আর প্রাপ্তির সব অর্জন, উপার্জন আজ সময়ের স্রোতে সব ভেসে গেছে। তা নিয়ে আমার কোন আপসোস নেই। চেনা মুখগুলো সব মুখ ফিরিয়ে অচেনা রূপ ধারণ করছে। তা নিয়ে আমি একটুও কষ্টবোধ করিনা। কারণ সময়ের স্রোতের সাথে সবাই গা ভাসিয়ে চলতে চাই। অহমিকা আর অট্টালিকায় সুখেরমোহে নিজেকে পরিবর্তন করতে চাই সবাই। আমি সেদিকে তিল পরিমাণও ভ্রুক্ষেপ করিনা। আমি স্বপ্ন দেখি স্বপ্নের ফেরিওয়ালা হবার। তাই নীল দরিয়ার তীরে বসে সমুদ্রের নীল নোনাজলে সব কষ্ট গুলোকে চিরতরে ভাসিয়ে দিয়েছি। কষ্টরা আমাকে আর কষ্ট দিতে পারেনা! কারণ আমি স্বপ্নের ফেরিওয়ালা। আমি স্বপ্ন দেখি বন্ধুত্বের হাত বাড়াবার, সবার মনের বন্দরে ভালবাসা ছড়িয়ে দেবার। আমি স্বপ্ন দেখি ভয়কে জয় করার, সবকিছু পেছনে ফেলে আমি স্বপ্ন দেখি স্বপ্নকে অতিক্রম করার। আমি স্বপ্ন দেখি কোমল স্পর্শে দুঃখ ভুলাবার, ‘মায়ার’ কলুষিত হৃদয়ে মনুষ্যত্ব জাগাবার। আমি স্বপ্ন দেখি সুন্দর এক পৃথিবী গড়ার, উন্মাদের তকমা গায়ে মেখে আমি স্বপ্ন দেখি স্বপ্নকে অতিক্রম করার। আমি স্বপ্ন দেখি অন্ধের সাদাছড়ি হবার, নিজের সবকিছু বিলিয়ে দিয়ে সবার পাশে দাড়াবার, দুস্থের মুখে হাসি ফোটাবার।
তাইতো আমি স্বপ্ন দেখি এবং জীবনটাকে ভালোবেসে শুন্যের মাঝে স্বপ্ন বাঁধি। শত দুঃখকে পেছনে ফেলে বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখি। দেখি জীবনে সফল হবার স্বপ্ন।  বনলতাকে ভালোবেসে জীবনটা কাটিয়ে দেবার স্বপ্ন দেখি। শীতের নিকষ কালো রাত্রিরা অনেক লম্বা হয় জানি। তারপরও অপেক্ষায় থাকি আলোকিত এক ভোরের প্রত্যাশায়। জানি প্রত্যাশার প্রহর শেষে শিশির স্নাত সেই আলোকিত ভোর একদিন উদয়িত হবে। তবে সেইদিন হয়তো এই আমিই হারিয়ে যাবো সময়ের স্রোতে।
লেখক: সাংবাদিক