সোনারগাঁয়ে মোর্শেদার বিরুদ্ধে বিধবা নারীকে কুপিয়ে আহত করার অভিযোগ

মাজহারুল রাসেল
সোনারগাঁ প্রতিনিধি :
সোনারগাঁয়ে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ইউপি সদস্য মোর্শেদা বেগমের বিরুদ্ধে মাহামুদা বেগমকে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে জখম করে স্বর্ণলংকার লুট করার অভিযোগ উঠেছে।
সোমবার  দুপুরে উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের  মঙ্গলেরগাঁও এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মাহামুদা বেগমের ছেলে মোঃ মারুফ বাদি হয়ে মোর্শেদা বেগমকে ১ নং আসামী ও সাথি বেগম, মুনিয়া আক্তার সহ আরো ২/৩ জনকে অজ্ঞাতনামা  আসামী করে সোনারগাঁ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগ থেকে জানা যায়, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের  ১,২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্য মাের্শেদা বেগমের নেতৃত্বে সাথি বেগম, মুনিয়া আক্তার ও আরাে অজ্ঞাতনামা ২/৩ জন মঙ্গলেরগাঁও গ্রামে মাহমুদা বেগমের বাড়িতে ঢুকে   পরিকল্পিত ভাবে দেশীয় অস্ত্র ধারালাে দা , বটি , চাকু , ছােড়া , লাঠি দিয়ে পিটিয়ে ও কুপিয়ে মাহমুদা বেগম ও তার মেয়ে মারুফা আক্তারকে রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় আশপাশের লােকজন উপস্থিতি টের পেয়ে তারা পালিয়ে যায়। পরে আশেপাশের লোকজন  গুরুতর  অবস্থা দেখে মাহামুদা বেগম (৫০) কে সােনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যায়। এছাড়াও আহত মাহামুদা বেগম (৫০) ও মারুফা আক্তার ( ১১ ) সাথে থাকা দু’টি স্বর্নের চেইন নিয়া যায়। যার বাজার মূল্য প্রায় ৯০ হাজার টাকা।
সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান বলেন, পিরোজপুর ইউনিয়নের একজন মহিলা মেম্বারের বিরুদ্ধে  একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।