লালমনিরহাট তিনবিঘা করিডোরে বিএসএফের দেয়াল নির্মাণের চেষ্টা, বিজিবির বাধায় স্থগিত

মিজানুর রহমানঃ
লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার আলোচিত দহগ্রাম তিনবিঘা করিডোরের সড়কের দুই ধারে তিন ফুট উঁচু দেয়াল নির্মাণের চেষ্টা চালিয়েছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় বিজিবি সদস্যরা নির্মাণকাজ বন্ধ করে দিয়েছে ।
পাটগ্রাম উপজেলার কুচলিবাড়ি ইউনিয়নের পানবাড়ি এলাকা থেকে দহগ্রাম ইউনিয়নের ভূ-খণ্ড পর্যন্ত, ভারতীয় ভুখন্ডের উপর করিডোর সড়কটির দৈর্ঘ্য ১৭৮ মিটার ও প্রস্থ ৮৫ মিটার। সড়কটি ২৪ ঘণ্টা ব্যবহারের জন্য ২০১১ সালের ১৯ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারত সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে খুলে দেন। তখন থেকে একটানা সড়কটি ব্যবহৃত করছেন বাংলাদেশের লোকজন।
স্থানীয়রা জানান, এক সপ্তাহ আগে তিনবিঘা করিডোর ভারতীয় অংশে বিএসএফ ইট, বালু, সিমেন্ট, রড সহ নির্মাণ সামগ্রী এনে রাখেন। ৫ সেপ্টেম্বর থেকে সড়কটি সংস্কার করতে সকাল থেকে প্রায় ১২- ১৫ জন নির্মাণ শ্রমিক সড়কের দুই পাশে গর্ত খনন শুরু করে। ৫১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পানবাড়ি কোম্পানি কমান্ডার জাহাবুল ইসলাম বিএসএফকে গর্ত করার ব্যাপারে জানতে চাইলে তারা বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে সড়কটি সংস্কার ও সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ করা হচ্ছে। এতে সাধারণ মানুষের চলাচলে কোনো সমস্যা হবে না।
দুইদিনে সড়কের প্রায় অর্ধেক অংশে গর্ত করা হয়। করিডোর সড়কের পূর্ব-দক্ষিণ দিকে তিন ফুট উঁচু দেয়াল নির্মাণকাজ চলতে থাকে। ভারতীয় কর্তৃপক্ষ যেভাবে নির্মাণকাজ করছিল সেভাবে নির্মাণ সম্পন্ন করা হলে বাংলাদেশি জনসাধারণ ও যানবাহন চলাচলে বিঘ্নতার সৃষ্টি হবে। বিষয়টি বুঝতে পেরে বুধবার সকালে বাধা দেয় বিজিবি। পরে কাজ বন্ধ করে দেওয়া হয়। ৫১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পানবাড়ি কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার জাহাবুল ইসলাম বলেন, ভারতীয় নির্মাণ শ্রমিকদের দিয়ে রাস্তার দুই পাশে সংস্কারের নামে উঁচু দেয়াল নির্মাণ করা হচ্ছিল আমরা বুঝতে পেরে বাঁধা দিয়েছি বর্তমানে নির্মান বন্ধ রয়েছে।
এদিকে এই ঘটনা কে কেন্দ্র করে দহগ্রাম ইউনিয়ন বাসি আতঙ্কিত রয়েছেন।