বাঘা ম্যাংগো ব্যান্ডিং কম্পিটিশন’র পুরুস্কার বিতরণ

সুব্রত কুমার,বাঘা (রাজ্যশাহী)প্রতিনিধিঃ-

হাতে সন্মাননা ক্রেষ্ট আর একটি করে মুঠোফোন। আনন্দঘন পরিবেশে এই সন্মাননা ক্রেষ্ট আর  মুঠোফোন প্রদান করা হয়, বাঘা ম্যাংগো ব্যান্ডিং কম্পিটিশন’২০২১ এর প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ৩জনকে। বিজয়ী- মাসুদ রানা,রুবিনা খাতুন ও মোশারফ হোসেনের হাতে এওলো তুলে দেন অতিথীরা। একই সাথে ৪জনকেও সন্মাননা ক্রেষ্ট দেওয়া হয়েছে। এরা হলেন-অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথী ,পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সহোদর ভাই,নর্থ বেঙ্গল এ্যার্গ্রো ফার্ম লিঃ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক  সাইফুল আলম বাদল,  অনুষ্ঠানের সভাপতি, উপজেলা নির্বাহি অফিসার পাপিয়া সুলতানা, বিশেষ অতিথী,রেডিও বড়ালের সিইও,শাহরিয়ার লিন মুকলেচ ও উপজেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল।

মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর বিকেল ৩ টায়  উপজেলা প্রশাসন ও ‘আমাদের বাঘা’ ফেসবুক   গ্রুপের সহযোগিতায় বাঘা ম্যাংগো ব্যান্ডিং  কম্পিটিশন’২০২১ এর পুরুস্কার বিতরনের আয়োজন করেন, কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের বাঘা উপজেলা কৃষি অফিসারের কার্যালয়। কৃষি অফিসার শফিউল্লাহ সুলতানের সার্বিক তত্বাবধানে অনুষ্ঠানটির সঞ্চালক ছিলেন কৃষি সম্প্রসারন অফিসার কামরুল ইসলাম।

 প্রধান অতিথী সাইফুল আলম বাদল তার বক্তব্য বলেন, বাঘার আম নিয়ে নাম করণের জন্য আমি অভিভুত হয়েছি। আগামীতেও এর সাফল্য কামনা করে তিনি বলেন,প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে দেশে কৃষি বিপ্লব ঘটেছে। নির্বাহি অফিসার বলেন,এ ধরনে আয়োজন প্রশংসার দাবিদার। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমি সাধুবাদ জানাচ্ছি। সামান্যতম এর অংশ হতে পেরে আমি গর্ভবোধ করছি। চাকুরি সুবাদে আমি  কোন একদিন চলে যাব। তবে এ ধরনের আয়োজনের ধারাবাহিকতা যেন অব্যাহত থাকে,সেই কামনা করছি ।

বিজয়ী মাসুদ রানা ও রুবিনা খাতুন তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করে বলেন, বিজয়ী হওয়ার জন্য যতটা আনন্দিত হয়েছি,তার চেয়ে বেশি আনন্দিত হয়েছি বাঘা ম্যাংগো ব্যান্ডিং  কম্পিটিশন’-এ অংশ গ্রহন করতে পেরে। আমরা বাঘার মানুষ,দেশ-বিদেশে বাঘার আম নিয়ে গর্ভ করতে পারি এই প্রত্যাশা করছি।

 সুত্রে জানা যায়,এ বছরের জুন মাসে ‘ বাঘা ম্যাংগো ব্যান্ডিং  কম্পিটিশন’ এর আয়োজন করে, বাঘা উপজেলা কৃষি অফিসারের কার্যালয় ও ‘আমাদের বাঘা’ ফেসবুক গ্রুপ। প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহনকারিদের মধ্যে প্রথম স্থান অংশ গ্রহন করেন মাসুদ রানা। তার শ্লোগান ছিল- দেশ ছাড়িয়ে বিদেশে, বাঘার আম শীর্ষে’। দ্বিতীয় স্থান অধিকারি রুরিনা খাতুনের শ্লোগান ছিল- ‘দেশ সেরা বাঘার আম,বিশ্ব জুড়ে তার সুনাম’। তৃতীয় স্থান অধিকারি মোশারফ হোসেনের শ্লোগান ছিল, ‘বাঘা বাসির আম স্বর্গের সমান’।