শার্শার আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৫ জন, আটক ২  

মোঃ ইকরামুল ইসলাম, শার্শা প্রতিনিধিঃ
যশোরের শার্শা উপজেলার নিজামপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পক্ষে বিপক্ষে  সমর্থন করাকে কেন্দ্র করে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে ৫ জন জখম হয়েছে এর মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
শনিবার ১৫ জানুয়ারি দুপুরে নিজামপুর ইউনিয়ানের ১নং ওয়ার্ডের গোড়পাড়া মানিকতলার সিরাজুল ইসলামের বাড়িতে রক্তক্ষয়ী  সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এই সংঘর্ষে আহতরা হলেন, পিকুল(২২), আজিজের ছেলে বাবুল আক্তার (২২),  ইদ্রিস (২৭), ইউনুস (২৫) ও রাব্বি (২১)। এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে শার্শা উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিলে তাদের অবস্থা খারাপ দেখে যশোর জেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স রেফার করেন।
ঘটনাস্থলে অবস্থানরত একাধিক ব্যাক্তি বলেন, পূর্ব মারামারির ঘটনার রেষধরে পিকুল,ইদ্রিস,রাব্বি,বাবু,ইউনুস সহ কয়েকজন সিরাজুলের ছেলে আশিককে বাড়ি থেকে তুলে আনতে যায়। প্রথমে তাকে বাড়ি না পেয়ে তারা আশিকের মাকে মারধর করে এমন সময় আশিক(১৭) এসে তাদের হাতে থাকা চাকু কেড়ে নিয়ে তাদেরকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে।  এঘটনায় ৫ জন গুরুত্বর জখম ও ২/১ জন হালকা আহত হয়।
অপর পক্ষ্যে এ ঘটনায় আশিকের বড় ভাই জাহাঙ্গীর হাতুরির আঘাতে মাথায় গুরুত্বর আঘাতপ্রাপ্ত হয় ।
 এই বিষয়ে  আব্দুল আজিজ বাদী হয়ে ৬ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পুলিশ এ ঘটনায় দুইজনকে গ্রেফতার করেছে।
এবিষয়ে শার্শা থানার ওসি বদরুল আলম খান নিজামপুর ইউনিয়ানে একটি সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, থানায় এবিষয়ে  একটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে এবং দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামীদের খুব দ্রুত গ্রেফতার চেষ্টা চলছে।