মানবতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন সাদ্দাম আকঞ্জি, রাজনৈতিক সুনাম ক্ষুন্নে অপচেষ্টা 

সোলায়মান হোসাইন রুবেল, নেত্রকোণা প্রতিনিধিঃ
ব্যস্তময় এই নাগরিক জীবনে সবাই যখন নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত, ঠিক তখন কিছু মানুষ মানুষদেরকে ভালোবেসে নীরবে কাজ করে যাচ্ছে। আর তাদেরই একজন  নেত্রকোণা দূর্গাপুর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাদ্দাম আকঞ্জি।
মানুষের পাশে থাকাই যার প্রধান লক্ষ্য, বন্যা এবং করোনা কালীন সময়ে মানুষের মাঝে থেকে অসহায় নিপীড়িত মানুষের হাসি, আনন্দ, দুঃখ-কস্ট  ভাগ করে নেওয়ার মাঝেই এক অন্য রকম সুখ পায় এই মানবতার ফেরিওয়ালা।
তার সেবামূলক কার্যক্রমে রয়েছে, অসহায় সামর্থ্যহীন ব্যক্তির  চিকিৎসার খরচ বহন, দুস্থদের বিনামূল্যে ডাক্তার দেখানো, বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা, দারিদ্র্যদের নগদ অর্থ প্রদান করা, গরীব অসহায় মানুষদের সাহায্য করা, ত্রান সামগ্রী দেওয়া।
বর্তমান চলমান বন্যায় নেত্রকোণা জেলায়
বেশি ক্ষতিগ্রস্ত মাঝে থাকা দুর্গাপুর উপজেলার বন্যা কবলিত প্রতিটি এলাকা ঘুরে ঘুরে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ সামগ্রীসহ নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করেন তিনি।
মানবতার ফেরিওয়ালা! উনার এই দান ও সহযোগীতায় অনেক অসহায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষেরা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে। তাছাড়া নিজে তদারকি করে এসব ত্রানসামগ্রী সবার ঘরে ঘরে পৌঁছে দেয় এই উপজেলা যুবলীগ নেতা ও ভাইস চেয়ারম্যান সাদ্দাম আকঞ্জি।
এমনকি বিগত করোনা কালীন সময়ে রয়েছে তার নানা রকম বহুমুখী সেবামূলক কাজ।
তিনি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের সময়ে বিশ্বব্যাপী মহামারি দেখা দেওয়ার কারনে মানুষ যখন কর্মহীন হয়ে পরেছিলো। অনেক নিম্নবিত্ত পরিবার যখন অসহায় হয়ে পড়লো, অসহায় গরীব দুঃখী মেহনতি দিনমজুর মানুষ যখন গৃহবন্ধী হয়ে পড়লো, ঠিক তখনি দেশের চরম সংকটময় মূহুর্তে নেত্রকোণার দুর্গাপুর উপজেলার হাজার হাজার পরিবারের ঘরে ঘরে প্রকাশ্যে ও গোপনে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছিলেন।
দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে নিজের আরাম আয়েশ ছেড়ে নিজের জীবনের ঝুকি নিয়েই মানুষের পাশে দাড়িয়েছিলেন এবং মানবতার হাত প্রসারিত করেছিলেন বিভিন্নভাবে।
কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে এই মানবিক মানুষটাকে কিছু অসাধু দুষ্কৃতীকারি ব্যাক্তিরা উনার সুনাম ক্ষুন্নে ও রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিল এবং সমাজে হেয় প্রতিপন্ন করার উদ্দেশ্যে মানবতার এই ফেরিওয়ালাকে নিয়ে মিথ্যা-বিত্তিহীন তথ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন ভাবে প্রচার করে আসছে। এনিয়ে উপজেলার সকল জনসাধারণ দরিদ্র অসহায় মানুষের মনে ক্ষুভ দেখা দিয়েছে।
এরকম মিথ্যা-ভিত্তিহীন তথ্য অপপ্রচার থেকে নিজেকে এড়াতে দূর্গাপুর থানায় সাধারণ ডায়রি (জিডি) করেন। উনার বিরুদ্ধে অপপ্রচার  দুষ্কৃতকারীদের আইনের আওতায় এনে বিচারের দাবি জন্য প্রশাসনের কাছে সাহায্য প্রার্থনা করেন তিনি।
মিথ্যা তথ্য অপপ্রচারের বিষয়ে সাদ্দাম আকঞ্জি
জানান, শুধু এখনই নয় বিগত সময় থেকে আমার রাজনৈতিক সুনাম ক্ষুন্নের জন্য কিছু দুষ্কৃতকারী ব্যাক্তিরা বিভিন্ন ভাবে অপপ্রচারে মাধ্যমে অপচেষ্টা চালিয়ে আসছে। তবে যে যায় করুক, শত কিছুর পরেও আমি আমার জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র হাতকে শক্তিশালী করা থেকে এবং উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখা থেকে কেউ আমাকে পিছু হটাতে পারবে না। আমি এর আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাবো।
তিনি আরো বলেন, আমি এবং আমার এক কর্মী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই মিথ্যা ভিত্তিহীন তথ্য অপপ্রচারের বিরুদ্ধে একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করছি। এমনকি আমি আমার নেতৃবৃন্দদেরকে বিষয়টি অবগত করেছি। তারা বিষয়টি দেখছে।