মহৎ সাংবাদিকতার অনন্য দৃষ্টান্ত সোনারগাঁয়ের কৃতি সন্তান আকতার হাবিব

মাজহারুল রাসেল :
নামে নয়, মানুষের মনুষ্যত্ব ফুটে উঠে মানবিকতায় ও তার মহৎকর্মে। তারই জ্বলজ্বলে উদাহরণ সোনারগাঁয়ের কৃতি সন্তান চ্যানেল আইয়ের ষ্টাফ রিপোর্টার আকতার হাবিব। সাংবাদিকতার এক অনন্য দৃষ্টান্ত। আকতার হাবিবের মহতি সব উদ্যোগ যেন, আমাদের বলে দেয়- মানুষের পাশে দাঁড়াতে আয়ের অংক কত সেটা বড় নয়, মনের বিশালতা প্রয়োজন।
কেউ বা ছাপিয়ে বেড়ায়, আবার কেউ ঝাঁপিয়ে পড়ে মানবতার সেবায়। ঘুমন্ত স্বত্ত্বাকে জাগিয়ে তুলে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে। সাহায্য করতে কোন দিবসের ধার ধারে নন সাংবাদিক আকতার হাবিব। কারো বিপদের কথা শুনলেই ছুটে চলেছেন তিনি। সোনারগাঁয়ে ব্যক্তিগত ও সামাজিক উদ্যোগে সংকটাপন্ন মানুষের সহযোগী হয়ে পাশে দাড়াতে ও মানব সেবা অব্যাহত রাখতে প্রতিষ্ঠত করেছেন সামাজসেবী সংগঠন ব্রাইট সোনারগাঁ। স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থী ও সমাজ সেবায় আগ্রহীদের সমন্বয়ে গঠিত এই সংগঠন ইতিমধ্যে স্বীকৃতি পেয়েছেন সোনারগাঁ উপজেলা প্রশাসন ও নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক থেকে।
নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ পৌরসভার সবচেয়ে অবহেলিত  ও অনুন্নত ছোটশীলমান্দী গ্রামের  আকতার হাবিবই মহৎ সাংবাদিকতার অনন্য দৃষ্টান্ত। বর্তমানে তিনি জনপ্রিয় চ্যানেল আই টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার, ডিআরইউর সদস্য, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের কাউন্সিলর, সোনারগাঁও প্রেসক্লাবের সদস্য, সোনারগাঁ প্রেস ইউনিটির উপদেষ্টা, সোনারগাঁ টাইমস টুয়েন্টিফোর ডটকম এর উপদেষ্টা ও সামাজসেবী সংগঠন ব্রাইট সোনারগাঁ এর প্রতিষ্ঠতা সভাপতি। তিনি কর্মজীবনে অত্যন্ত সৎ ও নিষ্ঠাবান হিসেবেই সুনামের সাথে পথ চলছেন । সততার কাছে কখনোই অাপোষ করেননি এই সংবাদকর্মী। পেশাকে ভালোবেসে দীর্ঘদিন ধরে বুকে ধারণ করে নিষ্ঠার সাথে চালিয়ে যাচ্ছেন সাংবাদিকতা।
পাশাপাশি মনবতার কল্যাণে রাত-দিন চিন্তা ফিকির ও অক্লান্ত পরিশ্রম করে মানুষের নানামুখী কর্য সাধনের মাধ্যমে   মানবতার দৃষ্টান্তের নজির স্থাপন করেছেন। এরই মধ্যে ঈদসামগ্রী নিয়ে দাঁড়িয়েছেন নীরবে নিভৃতে মধ্যবিত্তদের ঘরে ঘরে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ঘোষণা দিয়ে (আমাদের আশেপাশে যদি এরকম কোন মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে থাকে যারা কর্মহীন হয়ে ঈদের সামান্য বাজার করতে পারেনি। কারো কাছে চাইতে পারেননা। পরিবার নিয়ে মহা সংকটে আছে। আমাকে জানালে তাদেরকে আমাদের ঈদ উপহার পাঠিয়ে দেব।) এরকম বেশকিছু পরিবারে ঈদ উপহার পাঠিয়েছেন। এবং কিছু নগদ অর্থ সহায়তাও দেয়া হয়েছে। ১৪০ টি পরিবারে সাথে ঈদের খুশি ভাগাভাগি করে নিয়েছেন। এ সবই অব্যাহত  ব্রাইট সোনারগাঁ সংগঠনের উদ্যোগে।
বিশ্বব্যাপী যখন করোনার প্রাদুর্ভাব  দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। এর ছোবল থেকে বাংলাদেশও রেহাই পাচ্ছে না। প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্ত আর মৃতের সংখ্যা। মহামারি করোনা ভাইরাস থেকে মানুষকে নিরাপদ রাখতে নিয়মিত সতর্ক বার্তা দিচ্ছেন তার ফেইসবুক স্টাটাসে।
প্রিয় সোনারগাঁবাসী, এখনো সময় আছে সতর্ক হোন।  নিজে বাঁচুন, আপনার পরিবারকে বাঁচান। ঘরে থাকুন। আল্লাহ আমাদের সবাইকে হেফাজত করুন। আমিন।
মহাগ্রন্থ আল কোরআন নাজিলের ও রহমত বরকত মাগফেরাত, নাজাতের মাহে রমজান মাস উপলক্ষে
স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে সামাজিক সংগঠন ব্রাইট সোনারগাঁয়ের উদ্যোগে কোরআন পাঠ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেন।
লগডাউনের অবসর সময়ে বাবার সাথে তিনি নেমে পরেন কৃষি কাজে। করেন নানা প্রকারের সবজি চাষ। করোনা পরবর্তী দেশে খাদ্য সংকটের কথা বিবেচনায় প্রধানমন্ত্রী কৃষি উৎপাদন বাড়ানোর প্রতি জোর দিয়েছেন। ঘোষণা দিয়েছেন এক টুকরো জমিও যেন পতিত না থাকে।
প্রধানমন্ত্রীর সেই নির্দেশ বাস্তবায়ন ও বাবার মুখের হাসির জন্য চালকুমড়ার চাড়া, কিছু বরবটির বীজ, পেঁপেঁ বীজ লাগান। পাশাপাশি ঝড়ে ভেঙ্গে  পড়া বাড়ির কামড়াঙ্গা মরিচের গাছ দুইটাকে সোজা করা ও লেবু গাছের পরিচর্যা করেন।
আকতার হাবিব একজন সংবাদ কর্মী হিসেবেও পেশাগত দায়িত্ব পালনে ছিলেন সরব। চ্যানেল আই টেলিভিশনে দেখাগেছে তার করা অনেক রিপোর্টে।
তার মধ্যে নজর কেরেছে,
ঈদের আগের দিন রাজধানীর পরিস্থিতি,
 করোনাভাইরাসে সুস্থ হওয়াদের গল্প –
বাসায় ঘরোয়া চিকিৎসা নিয়েই সুস্থ হয়েছেন করোনায় স্বামী হারানো সোনারগাঁয়ের রোজিনা বেগম। ১৯ দিন হাসপাতালে থেকে সুস্থ হওয়া সাংবাদিক খলিলুর রহমান রিপোর্ট। ভাষা সংগ্রামী ও জাতীয় অধ্যাপক, ড. আনিসুজ্জামান স্যার ইন্তেকাল ও করোনা পজেটিভ নিয়ে করা প্রতিবেদন।
এক প্রশ্নর জবাবে আকতার হাবিব বলেন,
মানুষের সেবা করার ইচ্ছে শক্তিটাকেই মনের ভেতরে বেশি প্রাধান্য দিলে একজন সংবাদকর্মী হিসেবে আপনিও পরবেন সব করতে।
সংবাদকর্মী আকতার হাবিবের মতো এমন সেবামূলক মানসিকতা গড়ে উঠুক সব সাংবাদিকের মাঝে। এমন প্রত্যাশা থেকেই এই লেখা।