বাস্তবায়িত হতে যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত পায়রা নদীতে বরগুনা – আমতলী ব্রীজ

অলিউল্লাহ ইমরান, বরগুনাঃ

বরগুনা – আমতলী পায়রা (বুড়ীশ্বর) নদীতে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত ব্রীজ নির্মান বাস্তবরুপ নিতে যাচ্ছে। আজ মঙ্গলবার পায়রা নদীতে প্রস্তাবিত ব্রীজ স্হান সরেজমিনে পরিদর্শন শেষে বরগুনা সার্কিট হাউসে সন্ধায় সাংবাদিকদের পায়রা নদীতে প্রস্তাবিত “শেখ হাসিনা পায়রা” ব্রীজ নির্মানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সেতু বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী কাজী মোঃ ফৈরদৌস।

এ সময় তার সাথে ছিলেন,সেতু বিভাগের পরিচালক ও যুগ্ম সচিব ড.মোঃ মনিরুজ্জামান, সেতু বিভাগের  সচিব, রশিদুল হাসান, মোঃ ওহিদুজ্জামান, তত্তাবধায়ক প্রকৌশলী, সেতু বিভাগ,মোঃ তোফাজ্জেল হোসেন,তত্তাবধায়ক প্রকৌশলী ও প্রকল্প পরিচালক, পায়রা সেতু।

পায়রা নদীর বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন কালীন সময় সংসদ সদস্য আ্যাডঃ ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু, জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ সহ গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্হিত ছিলেন। পরিদর্শন শেষে সার্কিট হাউসে সংক্ষিপ্ত সময় অবস্হানকালে সেতু বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী কাজী মোঃ ফৈরদৌস বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে পায়রা নদীতে, লেবুখালী,মৃজাগন্জ্ঞ এবং বরগুনা -আমতলী ৩টি ব্রীজই হচ্ছে।ইতোমধ্যে ৩ টি ব্রীজের ডিজাইন সহ দাপ্তরিক কাজ শেষ হয়েছে। আরও কিছু মাঠ পর্যায়ের কাজ সম্পন্ন হলে অর্থ মন্রনালয় প্রাক্কলিত ব্যায় প্রস্তাব দাখিল করা হবে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আপনাদের সংসদ সদস্য আ্যাডঃ ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু ব্রীজের কাজের অগ্রগতি তদারকী করছেন, আপনাদের হতাশ হবার কিছু নেই।

সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু বলেন, বরগুনা- আমতলী পায়রা নদীর উপর ব্রীজ নির্মান নিয়ে কোন শংসয় নেই।

জনগনের নির্বাচিত প্রতিনিধি হিসাবে প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়ন প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে কাজ করে যাবার অঙ্গীকার ব্যাক্ত করে বলেন,এই ব্রীজ নির্মান হলে বরগুনার উন্নয়নের নতুন সূচনা শুরু হবে। বরগুনার, পর্যটন,মৎস্য এবং যোগাযোগ ব্যাবস্হার উন্নয়ন হবে।

জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন,পায়রা নদীতে ব্রীজ নির্মান হলে বরগুনার  সকল স্তরে উন্নয়ন হবে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে সকল সহযোগীতা অব্যাহত থাকবে।