বর্তমানে বিদেশে ইলিশ রপ্তানি করা সম্ভব – মৎস ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

পিরোজপুর প্রতিনিধিঃ

সরকার জাটকা সংরক্ষণে নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহন করায় বর্তমানে দেশের নদনদীতে ইলিশের উৎপাদন ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে বলে জানিয়েছেন মৎস ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম (এমপি)। জাতীয় মৎস সপ্তাহ উপলক্ষে শনিবার (২৫ জুলাই) পিরোজপুরের কঁচ নদীতে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ শেষে হুলারহাট দারুশ শরিয়াত দাখিল মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে আয়োজিত এক সংক্ষিপ্ত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী একথা বলেন।
এ সময় মন্ত্রী আরও বলেন, সরকার সফলভাবে জাটকা সংরক্ষণ করায় গত বছর ৩৮ হাজার কোটি জাটকা ইলিশের সাথে যুক্ত হয়েছে। ঐতিহ্যবাহী ইলিশ মাছ হারিয়ে যাওয়ার মানুষের মধ্যে যে আশংকা তৈরি হয়েছিল, বর্তমান সরকারের কঠোর পদক্ষেপের কারণে এখন বিশে^র আশি ভাগ ইলিশ মাছ বাংলাদেশে উৎপাদিত হয় বলে জানান তিনি।
এছাড়া জাটকা রক্ষার জন্য দলীয় লোকদের বাড়ি থেকেও অবৈধ জাল বের করে সেগুলো পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, মৎস সম্পদ উৎপাদন বৃদ্ধিতে সরকার সবসময় কঠোর অবস্থান গ্রহন করবে।
বর্তমান সরকারের আমলে মৎস মম্পদের ব্যাপক উন্নতি হয়েছে দাবি করে পিরোজপুর- ১ আসনের এ সাংসদ আরও বলেন, হারিয়ে যাওয়া দেশি প্রজাতির মাছগুলোকে বিলুপ্তির হাত থেকে রক্ষা করার জন্য সরকার কৃত্তিমভাবে সেগুলো উৎপাদন করে মানুষের কাছে পৌছে দিচ্ছে।
বর্তমানে বিদেশে মাৎস সম্পদ রপ্তানি করে বাংলাদেশ প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করছে এবং ভবিষ্যতে মৎস সম্পদই হবে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের অন্যতম মাধ্যম বলেও জানান মন্ত্রী।
বাংলাদেশ মৎস গবেষণা ইনস্টিটিউট এর সভাপতি ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কাজী শাহ্নেওয়াজ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ হাকিম হাওলাদার এবং প্রেসক্লাবের সভাপতি মুনিরুজ্জামান নাসিম প্রমুখ।
মাছের পোনা অবমুক্তকরণ শেষে মন্ত্রী পিরোজপুর সদর উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে মৎস চাষীদের মাঝে মাছের পোনা বিতরণ করেন এবং আধুনিক হাসপাতাল পরিদর্শন শেষে স্বাস্থ্য কমিটির সভায় যোগ দেন। বিকেলে তিনি পিরোজপুর প্রেসক্লাবের নবনির্মিত ভবন পরিদর্শন শেষে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় যোগ দেন।