নিজ জেলায় সংবর্ধিত পবনসহ যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির  ১০ নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের  কেন্দ্রীয় কমিটিতে
স্থান পাওয়া লক্ষ্মীপুরের ১০ কৃতি সন্তানকে সংবর্ধনা দিলো লক্ষ্মীপুর জেলা যুবলীগ।
শনিবার (২ জানুয়ারি) লক্ষ্মীপুর জেলার পৌর শহরের যুবলীগের কার্যালয় সামনে এ  সংবর্ধনা দেয়া হয়।
সংবর্ধিতরা হচ্ছেন যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হাবিবুর রহমান পবন, উপ-পরিবেশ সম্পাদক  সামছুল ইসলাম পাটোওয়ারী, উপ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দা শানজিদা শারমিন, সহ-সম্পাদক  অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদিন রিগ্যান, কার্যনির্বাহী সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মুক্তার হোসেন চৌধুরী  কামাল,অ্যাড. মো. শওকত হায়াত, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মোজাম্মেল হোসেন, এ,বি,এম শেখ ফরিদ উদ্দিন জীবন, আশফাক আহাম্মেদ চৌধুরী, জহিরুল আমিন জহির।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক হারুনুর রশীদ।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন
কেন্দ্রীয় যুবলীগর প্রেসিডিয়াম সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন, মোয়াজ্জেম হোসেন, তাজউদ্দিন আহমেদ, লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু, সাধারণ সম্পাদক নুরনবী চৌধুরী নয়ন, লক্ষ্মীপুর পৌর মেয়র আবু তাহের, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাজাহান মিয়া,যুবলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মাজহারুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর উত্তর যুগ্ম সম্পাদক তাজবিরুল হক অনু,ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গাজী সারোয়ার হোসেন বাবু সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে হারুনুর রশীদ বলেন, যুবলীগ করতে হলে পরিচ্ছন্ন রাজনীতি করতে হবে। ঐক্যবদ্ধ ভাবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে। লক্ষ্মীপুর থেকে ১০ জন কেন্দ্রীয় যুবলীগে পদ পাওয়া তাদেরও সাদুবাদ জানান তিনি। কেন্দ্রীয় যুবলীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ লক্ষ্মীপুরে আসায় তাদের কাছেও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মজিবর রহমান চৌধুরী নিক্সন বলেন, হেফাজতে ইসলামের
মামুনুল হকরা ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করছে,
আমরাও ধর্ম পালন করছি। এ সকল ধর্ম ব্যবসায়ীদের রুখে দিতে হবে। মামুনুল হকরা ধর্মের অপব্যাখ্যা দিচ্ছেন। চট্রগ্রামে  জিয়ার ভাস্কর্য আছ, তা নিয়ে তারা কোনো প্রতিবাদ করে নাই। তারা শুধু জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্যের বিরোধীতা করছেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্য আমরা একটি পতাকা পেয়েছি, একটি দেশ পেয়েছি। হেফাজত আর হেফাজত নাই। তারা এখন জামায়াত হয়ে গেছে। এদের রুখে দিতে যুবলীগই যথেষ্ট।
লক্ষ্মীপুর জেলা যুবলীগের সভাপতি একেএম সালাহ উদ্দিন টিপু সভাপতিত্বে  অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক  আব্দুল্লাহ আল নোমান।