ডোমারে পাখী শিকারের দায়ে ৩ জনের ভ্রাম্যমান আদালতে জেল

আলমগীর হোসেন, ডোমার(নীলফামারী)প্রতিনিধি:

নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় পাখী শিকারের অপরাধে তিন জনকে ভ্রাম্যমান আদালতে তিন দিনের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। শনিবার সকাল ১১ টার দিকে উপজেলার বোড়াগাড়ি ইউনিয়নের দেওনাই নদীর পাড়ে সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মনোয়ার হোসেন ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে ওই দন্ড প্রদান করেন।
শনিবার (৩১অক্টোম্বর) সকাল ১১টার দিকে তিন জন শিকারী গ্রামের বিভিন্ন এলাকা থেকে বণ্যপ্রাণী শিকার করে। সংবাদ পেয়ে বন বিভাগের কর্মকর্তা রেজাউল করিমসহ অন্যান্য কর্মচারীগণ তাদের বোড়াগাড়ী নদীর পাড় হতে আটক করে। এ সময় তাদের কাছ থেকে ১৫টি বগ ও ৬টি ডহুক পাখী উদ্ধার করা হয়। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মনোয়ার হোসেন ঘটনাস্থলে গিয়ে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে বণ্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন ২০১২ এর ৬/১ ধারা লঙ্ঘনে ৩৪ এর (খ)১ ধারা মোতাবেক তিন শিকারীকে তিন দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের কুমবাড়ী ডাঙ্গা এলাকার মৃত কাল্টু মামুদের ছেলে ইউনুছ আলী (৪৮) ও তার ছেলে মহসীন আলী (২০) ও সদর ইউনিয়নের পঃ চিকনমাটি পাটাকাটা গ্রামের শহীদ ইসলামের ছেলে আনোয়ার হোসেন সাগর (৩০)। পরে পাখীগুলো খোলা আকাশে অবমুক্ত করা হয়।
ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আটককৃতদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।