জাতীয় পার্টির শাসনামলে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন ছিলোনা – গোলাম মোহাম্মদ কাদের

মাজহারুল রাসেল :
ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সোনারগাঁও উপজেলা ও পৌরসভা জাতীয় পার্টির আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। শম্ভুপুরা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ কে সভাপতি ও কেন্দ্রীয় জাতীয় পার্টির নির্বাহী সদস্য সদস্য আবু নাঈম ইকবালকে সাধারণ সম্পাদক ও সোনারগাঁও থানা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বিডিআরকে সিনিয়র সহ-সভাপতি করে উপজেলা এবং এম জামানকে সভাপতি ও সফিকুল ইসলাম সফিকে সাধারণ সম্পাদ করে পৌরসভা জাতীয় পার্টির নাম ঘোষনা করেন পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের।
জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি বলেছেন, আগামী দিনের রাজনীতিতে জাতীয় পার্টি একমাত্র সম্ভাবনাময় পার্টি। তিনি বলেন, নিবন্ধিত দলগুলোর মধ্যে মাত্র তিনটি দলের কথা দেশের মানুষ বিবেচনা করেন। এরমধ্যে আওয়ামী লীগ দীর্ঘ দিন ক্ষমতায় আছে। ক্ষমতায় থাকলে যেমন উন্নয়নের ফিরিস্তি দেয়া যায়, তেমনি ব্যর্থতা ও খারাপ কাজের রেকর্ড তৈরি হয়। উন্নয়নের কথা মানুষ বেশি দিন মনে রাখে না, কিন্তু খারাপ কাজগুলো মানুষের মনে স্থায়ীভাবে থেকে যায়। আবার বিএনপি নানা সমস্যায় জর্জরিত। বিএনপি নেতৃত্ব সংকটে ভুগছে। অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বিএনপি। বিএনপিতে চরম হতাশা বিরাজ করছে। কিন্তু জাতীয় পার্টি ৩০ বছর ক্ষমতার বাইরে থেকে সুসংহত হয়েছে। জাতীয় পার্টির কোন দূর্নাম নেই। বলেন, জাতীয় পার্টির ঐতিহ্য আছে। পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ন্যায় বিচার ভিত্তিক সমাজ গঠন করেছিলেন। বলেন, জাতীয় পার্টির আমলে ন্যায় বিচার নিশ্চিত ছিলো। কে কোন দলের সমর্থক সেটা বিবেচ্য বিষয় ছিলোনা, অপরাধীর শাস্তি নিশ্চিত ছিলো। জাতীয় পার্টির শাসনকালে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন ছিলোনা। মৃত্যুদন্ডের আইন করে এসিড সন্ত্রাস বন্ধ করেছিলেন। জাতীয় পার্টির শাসনকালে মানুষ শান্তিতে ছিলো, নিরাপদে ছিলো।
আজ বিকেলে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও আমিনপুর মাঠে উপজেলা ও পৌর জাতীয় পার্টির সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান।
জাতীয় পার্টি প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঢাকা বিভাগীয় অতিরিক্ত মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা এমপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, জাতীয় পার্টি উন্নয়ন ও সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে রাজনীতি করছে। তিনি বলেন, বর্তমানে উন্নয়নের সাথে প্রকাশ্যে নারী নির্যাতন হচ্ছে। তিনি বলেন, নারীর সম্ভ্রম বাঁচাতে হবে। পল্লীবন্ধুর স্বপ্নের নতুন বাংলাদেশ গড়তে ইউনিয়ন পর্যায়ে দলকে আরো শক্তিশালী করতে জাতীয় পার্টির নেতা-কর্মীদের প্রতি আহবান জানান জাতীয় পার্টি মহাসচিব।
সম্মেলনের সভাপতির বক্তৃতায় লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি সোনারগাঁও পৌর ও উপজেলার নব নির্বাচিত নেতৃত্বের নাম ঘোষণা করেন। কাউন্সিলরদের মতামতের ভিত্তিতে সোনারগাঁও পৌর জাতীয় পার্টি সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন এম.এ. জামান এবং সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন শফিকুল ইসলাম। সোনারগাঁও উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন আবদুর রব, সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম এবং  সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন আবু নাঈম ইকবাল।
এসময় আরো বক্তব্য রাখেন, প্রেসিডিয়াম সদস্য লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী এম.পি, ভাইস চেয়ারম্যান আরিফ হোসেন খান, আসিফ শাহরিয়ার, যুগ্ম মহাসচিব গোলাম মোহাম্মদ রাজু, যুগ্ম মহাসচিব ও জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টি কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মোঃ  বেলাল হোসেন, আশরাফ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ হুমায়ুন খান, এনাম জয়নাল, মিজানুর রহনান, প্রচার সম্পাদক মাসুদুর রহমান মাসুম , সমাজ কল্যাণ সম্পাদক এম এ রাজ্জাক খান,  শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মিজানুর রহমান মিরু, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আল যোবায়ের, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সোবহান, আব্দুস সাওয়ার গালিব, মোঃ নজরুল ইসলাম, সদস্য মনিরুজ্জামান টিটু, আবু সাঈদ স্বপন।