গত ২৪ দিনে ১৭ মাদক ব্যবসায়ী আটক

ইমরান হোসেন :
শনিবার (৪জুলাই) দুপুরে ২৪ দিনে ১৭ মাদক ব্যবসায়ীকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) হারুন-অর-রশিদ।
গত জুন মাসে ২৪ দিনে পৃথক অভিযানে ১৭ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে আশুলিয়ার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হারুন-অর-রশিদ। এ সময় আটকদের তল্লাশি চালিয়ে ৫৭০৩ পুরিয়া হেরোইন ও ৪৩১ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।
এজাহার সূত্রে জানা যায় যে, সাম্প্রতি গত ২৭ জুন রাত সাড়ে ১১ টার দিকে আশুলিয়ার গাজিরচট বুড়ির বাজার এলাকা থেকে ৭ মাদক ব্যবসায়ীকে ১৪৭ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেটসহ আটক করেন তিনি।
গত ২২ জুন সকাল সাড়ে ৭টার দিকে আশুলিয়ার শ্রীপুর এলাকা থেকে ইউপি সদস্যের ভাইসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেন তিনি। এ সময় তাদের নিকট তল্লাশী চালিয়ে ১৫৪ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট সহ  আটক করেন ।
এর আগে, গত ২০ জুন বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে আশুলিয়ার বাইপাইল এলাকার বিসমিল্লাহ হোটেলের সামনে থেকে রকিবুল ইসলাম(৪৮) নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে ১২০০ পুরিয়া হেরোইনসহ আটক করেন।
এর আগে ১২ জুন বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়া আশুলিয়ার কাঠগড়া এলাকা থেকে তিন মাদক ব্যবসায়ীকে ১২০ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট ও ৩০০৩ পুরিয়া হেরোইনসহ আটক করেন।
গত ৪জুন রাত সাড়ে ১১ টার দিকে আশুলিয়ার গজিরচট বুড়ির বাজার এলাকা থেকে সোহাগ মিয়া (২০) ও রায়হান (২৫) নামের দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক করেন। এ সময় তাদের নিকট তল্লাশী চালিয়ে ১০ পিচ ইয়াবা ও ১৫০০ পুরিয়া উদ্ধার করেন।
 এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই)   হারুন-অর-রশিদ জানান যে, করোনা ভাইরাসের কারনে আশুলিয়া থানা পুলিশ যখন সাধারন মানুষের সচেতনতা, সামাজিক দূর,  স্বাস্থ্যবিধি এবং বাড়ি এলাকা লকডাউন সহ নিয়মিত ডিউটিতে ব্যস্ত থাকায় ও থানা ওসি স্যারসহ ৩০ পুলিশ করোনা ভাইরাস আক্রান্তের কারনে হঠাৎ করে এলাকায় মাদক বেড়ে যায়।
তিনি আরও বলেন, পুলিশ সুপার মহোদয়ের আদেশ মোতাবেক আমরা মাদক, অবৈধ গ্যাস সংযোগ, ভূমি দখলদার,বিট পুলিশিং এর প্রতি বেশি বেশি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের চেষ্টা করেছি যে মাদক ব্যবসায়ী ও সেবি যেই হোক না কেন জেলে যেতেই হবে। সেই লক্ষ্যে কাজ করায় গত ২৪ দিনে আমি ১৭ মাদক ব্যবসায়ী কে আটল করতে সক্ষম হয়েছি। আমার এই চেষ্টা আগামীতেও অব্যাহত থাকবে।
মাদককে না বলুন, সুন্দর ও মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে পুলিশকে তথ্য দিন, আমরা আপনাদের সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।