কেরানীগঞ্জের নিখোঁজের পর আজগর আলীর লাশ উদ্ধার

শাহিন আহম্মেদ, কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি :

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার তেঘরিয়া ইউনিয়নের রাজেন্দ্রপুরের নোয়াদ্দা গ্রাম থেকে নিখোঁজ হওয়া আজগর আলী (৪৮) এর লাশ শ্রীনগর থেকে উদ্ধার হয়েছে।

২৮ আগস্ট শুক্রবার দুপুরে ঘর থেকে বেড় হয়ে তিনি নিখোঁজ হন। এরপর ২৯ আগস্ট (শনিবার) বিকেলে শ্রীনগর থানা থেকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন গিয়ে তার লাশ শনাক্ত করে।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, নিহত আজগর আলী রাজেন্দ্রপুরে শ্বশুর বাড়ি এলাকায় থাকতেন। এবং ঢাকা-মাওয়া সড়কের রাজেন্দ্রপুর বাজারে ব্যবসা করতো। ঢাকা-মাওয়া রোড প্রসস্থ হওয়ার কারণে তার দোকান ভেঙে বেকার অবস্থায়ই ছিলোই ছিলো সে। ২৮ জুলাই শুক্রবার বন্ধুদের কথা বলে ঘর থেকে বেড় হয়ে সে আর বাসায় ফিরেনি। শনিবার মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর থানা পুলিশের মাধ্যমে তার মৃত্যুর খবর পায় পরিবার।

তবে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, মৃত্যুর ঘটনায় কেরানীগঞ্জের  তেঘরিয়া ইউনিয়ন শ্বশুর বাড়ি এলাকায়  ও বাস্তা ইউনিয়ন নিজ
এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনায় জড়িত সন্ধেহে পুলিশ গতরাতে  ১.মিলন পিতা ফালান মিয়া ২.জসিমউদদীন পিতা লোকমান হোসেন ৩. আমান পিতা আ. গফুর এবং ৪.মিন্নত আলী নামের চারজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে গেছে।

সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মৃত্যুর ঘটনায় এখনো কোন মমলা হয়নি। তবে ময়নাতদন্তের পর গতকাল বিকেলে নিহত আজগর আলীর লাশ তার বাবা বাড়ি বাস্তা ইউনিয়নের   দড়িগাও গ্রামে কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে  শ্রীনগর থানার ওসির সাথে  একাধিক বার ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাকে ফোনে পাওয়া যায়নি। আর দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি শাহ জামান এব্যাপারে কিছু জানেনা বলে জানিয়েছেন।