অযোগ্য মানুষ তেলের কারনে সমাজে এখন নামী-দামী – লিখন রাজ 

:-
আমি ভাই এক বোকা সোকা লোক
অল্প সল্প বুঝি,
তাই নিজেকে বাচাতে, উপরে উঠতে
করেছি শুরু তেলবাজি।
অফিসের বসকে ‘জী হুজুর’
বলে ডাকি।
সারাক্ষণ তার আশেপাশে থাকি।
সুযোগ পেলেই –
তার সারা গায়ে মারি তেল।
করি না তাই আমি
কোনো কাজে ফেল।
এ বিচিত্র দেশে আজ
চলছে তেলের খেল।
তেল মারামারি হয়েছে শিল্প,
তাই বাড়ছে তেলের দাম।
আলু ফলিয়ে মরছে চাষী,
ব্যর্থ ওদের ঘাম।
তেল মারার বদলে যদি
আলুমারা হতো শুরু,
বাড়তো আলুর দাম,
চাষীরাই হতো নাটের গুরু।
এই তেল আপনি আমি ইচ্ছা করলেই মারতে পারি না। তেল মারার জন্য বিশেষ যোগ্যতার প্রয়োজন হয়। যেমন তার কয়েকটা: ১। তেলবাজ হওয়ার ১ম শর্ত নিজের সম্মানবোধ এটা থাকতে পারবে না। ২। লজ্জা শরমের মাথা পানি দিয়ে ধুয়ে খেয়ে ফেলতে হবে। ৩। হয়ত টয়লেট পরিষ্কার করে দিতে হতে পারে এতে পিছপা হলে চলবে না। ৪। যাকে তেল মারবে তার যতটা সম্ভব কাছাকাছি থাকতে হবে। ৫। যত কষ্টের কাজই হোক আপনার করতে হবে কারন তার পরেই আপনার জন্য সফলতা অপেক্ষা করছে। ৬। মাঝে মাঝে নিজের প্রসংশাও করবে হবে। আমি এটা পারি, সেটা পারি ইত্যাদি বলতে হবে। যদিও অনেক কিছুই পারি না। ৭। অন্যদের দোষগুলো তুলে ধরে নিজেকে দুধে ধোঁয়া তুলসী পাতা হিসেবে জাহির করতে হবে। ৮। অন্য কেউ এসে যেন আপনার জায়জা দখল করতে না পারে সেজন্য এমন কিছু ফর্মূলা এপ্লাই করতে হবে যাতে অন্যরা খারাপ এটা ফুটে ওঠে।